তিস্তার পানি না দিতে ভারতের কূটকৌশল: পানির পরিবর্তে বিদুৎ দিয়ে বাংলাদেশকে খুশি করার প্রস্তাব মমতার

ডেস্ক রিপোর্ট: পোস্টকার্ড | প্রকাশিত: ০৯ এপ্রিল ২০১৭, ০৩:১১ অপরাহ্ন
teesta

তিস্তার পানি না দিতে চরম কূটকৌশল নিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকার। একদিকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী বলছেন তার মেয়াদেই তিস্তা চুক্তি হবে আবার তাদের পশ্চিমবঙ্গ সরকারের মুখ্যমন্ত্রী বলছেন তিস্তা নয় বরং অন্য ছোট নদীর ক্ষেত্রে চুক্তি হতে পারে। এমনকি পানির পরিবর্তে  বিদুৎ দিয়ে বাংলাদেশকে খুশি করার প্রস্তাব দেন মমতা ব্যানার্জি।  


ভারত ও বাংলাদেশে চলতি সরকারের মেয়াদ কালেই তিস্তার পানি বণ্টন চুক্তি সম্পাদন হবে বলে কাল দুপুরে আশা প্রকাশ করেছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। আর তার পরেই মধ্যাহ্নভোজের আসরে এবং রাতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে একান্ত বৈঠকে এই কূটচাল দেন মমতা ব্যানার্জি।
 তিনি বলেন, ‘‘আপনার তো জল দরকার। তোর্সা ও আরও যে দু’টি নদী উত্তরবঙ্গ থেকে বাংলাদেশে গিয়েছে, তার জলের ভাগ ঠিক করতে দু’দেশ কমিটি গড়ুক। শুকনো তিস্তার জল দেওয়াটা সত্যিই সমস্যার।’’ আবার এর পরিবর্তের তিনি পশ্চিমবঙ্গ  থেকে বাংলাদেশে ১০০০ মেগাওয়াট পর্যন্ত বিদ্যুৎ রপ্তানীর প্রস্তাব দেন।


তিস্তার জল দিতে না-পারার বিষয়টি নিয়ে বাংলাদেশের মানুষ যাতে ভুল না-বোঝেন, সে জন্যই নাকি বিদ্যুৎ রপ্তানীর প্রস্তাব, এমনটাই  জানিয়েছে  ভারতীয় পত্রিকা আনন্দবাজার।   
গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় নয়া দিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের পর বেরিয়ে এসে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, বিষয়টি তিনি শেখ হাসিনাকে ‘বুঝিয়ে বলেছেন’।


“আমি একটি বিকল্প প্রস্তাব ভেবে দেখতে বলেছি সবাইকে। দুই সরকারকে। এটা আমি লাঞ্চেও বলেছি"।
অবশ্য ভারতের এমন প্রস্তাবের পর বাংলাদেশ সরকারের কোনো আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া জানা যায় নি।