আন্তর্জাতিক কবাডি সংস্থার নজিরবিহীন সিদ্ধান্তঃ ভারতে বিশ্বকাপ খেলতে আসতে পারবে না পাকিস্তান

ডেস্ক রিপোর্ট: পোস্টকার্ড | প্রকাশিত: ০৬ অক্টোবর ২০১৬, ১২:৪৩ অপরাহ্ন
pak-not-allowed-in-kabaddi-world-cup

নজিরবিহীন এক সিদ্ধান্ত নিয়েছে আন্তর্জাতিক কবাডি সংস্থা। এই প্রথম দুই দেশের মধ্যে মধ্যেকার চলমান রাজনৈতিক উত্তেজনায় কোনো এক দেশের পক্ষাবল্বন করে অন্য আরেক দেশের খেলতে আসায় নিষেধাজ্ঞা দিল আন্তর্জাতিক  কোনো ক্রীড়া সংগঠন। ভারতের আহমেদাবাদে আগামী  শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া কবাডি বিশ্বকাপের  দু’দিন আগে ছেঁটে ফেলা হল পাকিস্তানকে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার। 
 
পত্রিকার এক রিপোর্টে বলা হয় আন্তর্জাতিক কবাডি সংস্থার তরফে সাফ জানিয়ে দেওয়া হইয়েছে  যে,  দুই দেশের সম্পর্কের অবনতির ফলে, টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না পাকিস্তানি খেলোয়াড়রা।  
 
আন্তর্জাতিক কবাডি সংস্থার প্রেসিডেন্ট জনার্দন সিংহ গেহলত বুধবার আনন্দবাজারকে বলেন  উরি হামলা এবং সার্জিকাল স্ট্রাইকের পর, তাঁরা এই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছেন।  তিনি বলেন ‘‘এখন পাকিস্তান ভারতের মাটিতে খেললে মানুষ ভালভাবে নেবেন না, তাই কোনও রকম বিতর্ক এড়াতেই আমাদের এই সিদ্ধান্ত। দিন কয়েক আগেই সেই সিদ্ধান্তের কথা পাকিস্তানকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে”। 
 
পাকিস্তান কবাডি ফেডারেশনের প্রধান রানা মহম্মদ সারওয়ারের অবশ্য দাবি, এ বিষয়ে তাঁদের কিছুই জানায়নি আন্তর্জাতিক সংস্থা।
‘‘আমরা কোনও ইমেল পাইনি এখনও। পাকিস্তান সরকারের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছি, যদিও হাতে সময় প্রায় নেই বললেই চলে,’’ ইসলামাবাদ থেকে আনন্দবাজারকে জানান সারওয়ার।
ভারতে আসার জন্য সপ্তাহ তিনেক আগে ভিসার আবেদন করে পাকিস্তান টিম, কিন্তু এখনও সেই আবেদনে সাড়া মেলেনি। ‘‘রাজনীতির সঙ্গে খেলাকে কখনওই মেলানো উচিত নয়। প্রত্যেক খেলোয়াড়ের স্বপ্ন থাকে বিশ্বকাপে ভাল খেলার, অথচ এ বার আমাদের ছেলেরা খেলবে না, বিশ্বাস হচ্ছে না,’’ বলেন  সারওয়ার।
 
আন্তর্জাতিক কবাডি সংস্থার কর্তাদের দাবি, সপ্তাহ কয়েক আগেই পাকিস্তানকে এই সিদ্ধান্ত তাঁরা জানিয়েছিলেন। ‘‘এটা নিয়ে অহেতুক জল ঘোলা করা হচ্ছে। এই মুহূর্তে দুই দেশের যা সম্পর্ক, তাতে খেলা হওয়া অসম্ভব। আমরা বাকি সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেই এই সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হই,’’ বলেন গেহলত।
 
সূত্র- আনন্দবাজার পত্রিকা